Gyanvapi Mosque: জ্ঞানবাপী মসজিদে পুজোর অনুমতি মিলল হিন্দুদের, নির্দেশ আদালতের | SANGBAD BHAVAN  

Gyanvapi Mosque: জ্ঞানবাপী মসজিদে পুজোর অনুমতি মিলল হিন্দুদের, নির্দেশ আদালতের

Gyanvapi Mosque: জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দুদের পুজো নিয়ে বিরাট রায় দিলো আদালত! জানা গিয়েছে, এবার থেকে সেখানে হিন্দুরা পুজো করতে পারবেন। বারাণসী জেলা আদালতের বিচারক এ কে বিশ্বেষার এই বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছেন একজন পুরোহিতের দ্বারা পুজো করানোর জন্য।

তার মতে, ‘কাশী বিশ্বনাথ ট্রাস্ট এবং অন্য আবেদনকারীদের দ্বারা পশ্চিমে বিতর্কিত মূর্তিগুলির নামকরণ করা হয়েছে। প্লট নম্বর ৯১৩০ পুলিশ থানা এবং জেলা বারাণসীর ওই কাঠামোতে পুজো করা যাবে। সাত দিনের মধ্যে সেখানে লোহা-সহ অন্যান্য জিনিসের মাধ্যমে ব্যারিকেড করে দিতে হবে।’

আরও পড়ুন,
*রামমন্দির বিরোধী পোস্ট! প্রাক্তন মন্ত্রীর কন্যাকে এলাকা ছাড়তে বলল দিল্লি আবাসিক কল্যাণ সমাজ
*‘নির্বাচনী ভাষণ!’ রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর বক্তব্যের তীব্র সমালোচনায় বিরোধীরা

আপাতত কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের পুরোহিতরাই এখানে পুজো করবেন। এর আগে মসজিদের (Gyanvapi Mosque) দক্ষিণের অংশ সিল করা হয়েছিল। পুরোহিত শৈলেন্দ্র কুমার পাঠকের দ্বারা মামলার প্রেক্ষিতে প্রশাসনকে এই স্থানের দায়িত্ব দেওয়া হয়। আর এবার সেখানেই হিন্দুদের পুজোর অনুমতি মিললো।

উল্লেখযোগ্য, মসজিদের(Gyanvapi Mosque) উপর দীর্ঘ সময় ধরে ‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’ সমীক্ষা চালাচ্ছিল। যেখানে বলা হয় এই মসজিদের ভেতরে অনেক হিন্দু দেবদেবীর মূর্তি পাওয়া গিয়েছে। আসলে এটি প্রথমে হিন্দু মন্দির ছিল। পরে ঔরঙ্গজেবের রাজত্বকাল তা ধ্বংস করা হয়।

এরপর সেই কাঠামো দিয়েই তৈরি করা হয় মসজিদ। হিন্দু পক্ষ থেকে বারবার অভিযোগ করা হয়েছে আসল কাশী বিশ্বনাথ মন্দির ধ্বংস করে এই মসজিদ গড়ে তোলা হয়েছে। তাই চার হিন্দু মহিলা সেখানে পুজো করার অনুমতি চেয়ে মামলা দায়ের করেছিলেন। দীর্ঘ সময় পর অবশেষে সেই অনুমতিই মিললো।

আরও পড়ুন,
*মারধর বকাবকি নয়, এই ভাবে বাগে আনুন বাচ্চার জেদ
*মারধর বকাবকি নয়, এই ভাবে বাগে আনুন বাচ্চার জেদ

Note: প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল / অনলাইনে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। খবরের সত্যতা যাচাই করেনা Sangbad Bhavan। ভিডিও খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন সংবাদ ভবন YouTube পেজ। ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।