'
'প্রভু শ্রীরাম কে নাম’ অযোধ্যায় রজনীকান্ত, সফরসঙ্গী জামাই ধনুষ'প্রভু শ্রীরাম কে নাম’ অযোধ্যায় রজনীকান্ত, সফরসঙ্গী জামাই ধনুষ

বিবাহবিচ্ছেদের পথে হেঁটেছেন মেয়ে-জামাই, থাকছেন না এক ছাদের তলায় অথচ সেই জামাইয়ের সাথেই অযোধ্যার রামমন্দিরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন জনপ্রিয় দক্ষিণী তারকা রজনীকান্ত! সম্প্রতি চেন্নাই বিমানবন্দরে ক্যামেরাবন্দী হয়েছেন ধনুষ এবং তার শ্বশুর। ২২শে জানুয়ারী প্রাণপ্রতিষ্ঠা হতে চলেছে অযোধ্যার রামমন্দিরে। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর নিজস্থানে ফিরতে চলেছেন রামলালা।

গোটা দেশজুড়েই ভক্তদের উত্তেজনা তুঙ্গে। ইতিমধ্যেই অযোধ্যায় পৌঁছে গিয়েছেন তাবড়-তাবড় তারকারা। সেরকমই এবার অযোধ্যার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন ধনুষ এবং রজনীকান্ত। সম্প্রতি চেন্নাই বিমানবন্দর একসঙ্গে দেখা গিয়েছে তাদের। রবিবার সকালে অযোধ্যা পৌঁছেছেন তারা।

আরও পড়ুন,
*বাড়িতে বসেই রামমন্দির উদ্বোধনের সাক্ষী হতে পারবেন, জেনে নিন পদ্ধতি
*রামের প্রেমিকা! মাথায় ঘোমটা দিয়ে নারী’র ভঙ্গিমায় প্রভুর পুজো করেন ‘রাম রসিক’ সম্প্রদায়ের পুরুষেরা

এর আগেও ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’এ অংশ নিয়েছিলেন রজনীকান্ত। কিছু বছর আগে তিনি জানিয়েছিলেন তিনি বিজেপিকে সমর্থন করেন। তবে কখনো কোনো প্রচার করতে দেখা যায়নি এই অভিনেতাকে।

এমনকি কয়েক বছর আগে সক্রিয় রাজনীতি থেকে বিরতি নিয়েছেন তিনি। এই বিষয়ে জানিয়েছিলেন শারীরিক কারণেই তিনি রাজনীতি থেকে বিদায় নিয়েছেন। তবে এবার রামমন্দির উদ্বোধনে অংশ নিতে দেখা যাবে তাকে।

অন্যদিকে দীর্ঘ ২ দশক সংসার করার পর বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ধনুষ এবং ঐশ্বর্য্য। যদিও তারা আইনি বিচ্ছেদের পথে হাঁটবেন না। দুই সন্তানের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। বর্তমানে আলাদাই থাকেন ধনুষ এবং ঐশ্বর্য্য। তবে মেয়ে-জামাইয়ের সম্পর্ক ভালো না হলেও জামাইয়ের সাথে বেশ ভালো সম্পর্ক রয়েছে রজনীকান্তের। তাইতো একসঙ্গে অযোধ্যায় হাজির হয়েছেন এই দু’জন।

আরও পড়ুন,
*রামরামপাড়ার সব পুরুষের নামেই ‘রাম’-এর ছোঁয়া, বাঁকুড়ার ‘রামময়’ গ্রাম সাজছে অযোধ্যা ধামের জন্য রাম
*রামমন্দিরে ৫০ কোটি অনুদান দিতে চলেছেন প্রভাস, রামের চরিত্রে অভিনয়ের বিতর্ক ধামাচাপা দিতেই কি এই ক্ষতিপূরণ?

Note: প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল / অনলাইনে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। খবরের সত্যতা যাচাই করেনা Sangbad Bhavan। ভিডিও খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন সংবাদ ভবন YouTube পেজ। ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।