দাদুর কোল থেকে একরত্তিকে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে কামড় বসায়ে দিল কুকুর! একাধিক সেলাই, হাড় ভেঙে গিয়েছে শিশুটির | SANGBAD BHAVAN  

দাদুর কোল থেকে একরত্তিকে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে কামড় বসায়ে দিল কুকুর! একাধিক সেলাই, হাড় ভেঙে গিয়েছে শিশুটির

দাদুর কোলে ছিল একরত্তি মেয়েটি। আর সেই একরত্তি মেয়েকেই পা কামড়ে টান দিল প্রতিবেশীর কুকুর। এরপরই ঘটে রক্তারক্তি কান্ড। এরফলে ওই একরত্তি মেয়েটির শরীরে সেলাই পড়েছে ও হাড় ভেঙে গিয়েছে। জানা গিয়েছে, ওই শিশুর বয়স দেড় বছর। একটি সিসিটিভি ফুটেজ পুলিশের হাতে পৌঁছেছে। আর সেখানে দেখা গিয়েছে, কিভাবে সেই একরত্তি মেয়েটিকে পা ধরে টানছে কুকুরটি।

কুকুরটি যার পোষ্য তিনিও অনেকক্ষণ ধরে ছাড়ানোর চেষ্টা করেন। শেষে একমিনিট পর এই রক্তাক্ত যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে। শিশুটিকে তড়িঘড়ি হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ১৭ দিন ধরে নিয়মিত চিকিৎসা চলে তার।
জানা যাচ্ছে, চিকিৎসায় একাধিক সেলাই পড়েছে শিশুটির এবং বেশ কিছু হাড় ভেঙে গিয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন,
*রামমন্দিরে ৫০ কোটি অনুদান দিতে চলেছেন প্রভাস, রামের চরিত্রে অভিনয়ের বিতর্ক ধামাচাপা দিতেই কি এই ক্ষতিপূরণ?
*রামকে অপমান করে রোষের মুখে অভিনেত্রী নয়নতারা, পাপ খণ্ডন ‘জয় শ্রী রাম’ লিখে

যে কুকুরটি কামড় বসাতে যায় সেটি পিট বুল প্রজাতির কুকুর। আপাতত ভারতে এই কুকুর রাখা নিষিদ্ধ রয়েছে। তবে এখনও অনেক বাড়িতেই এই কুকুর রাখেন। ভারতে এই কুকুর আপাতত নিষিদ্ধ তবে যাদের ইতিমধ্যে নথিভুক্ত করা হয়েছে তারা রাখতে পারবেন এবং রাস্তায় বেরোনোর সময় কুকুরের মুখ বন্ধ করে রাখতে হবে।

এমন নির্দেশিকা জারির পরেও দিল্লির বুরারিতে মারাত্মক ঘটনাটি ঘটেছে গত ২ রা জানুয়ারি। এখনও শিশুটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার শরীরে ১৮টি সেলাই পড়েছে। পুলিশের হাতে যে সিসিটিভি ফুটেজ জমা হয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে ৬ থেকে ৭ জন মিলে কুকুরটিকে ছাড়ানোর চেষ্টা করতে থাকেন।

কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি। এরপর শিশুর পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন৷ তারা দাবি করছেন লোকালয়ে এভাবে কুকুর নিয়ে বেরোনো যথেষ্ট ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে অধিবাসীদের কাছে। জানা যাচ্ছে, পুলিশকে জানানো সত্ত্বেও কোনো লাভ হয়নি৷ কুকুরের মালিকের বিরুদ্ধেও কোনো ব্যবস্থা পুলিশ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করে শিশুর পরিবার।

আরও পড়ুন,
*শৈশবের দেখা স্বপ্নের মিল বাস্তবে! রামলালার মুখ দেখে উচ্ছ্বাসিত কঙ্গণা রানাওয়াত
*নতুন বছরেই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবেন বিজয় দেবরকোণ্ডা ও রশ্মিকা মন্দনা, ১৪ ফেব্রুয়ারি দিতে চান বিশেষ উপহার

Note: প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল / অনলাইনে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। খবরের সত্যতা যাচাই করেনা Sangbad Bhavan। ভিডিও খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন সংবাদ ভবন YouTube পেজ। ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।