Madhumita Sarcar: '..I danced so many monkey dances on the road...', why did Madhumita suddenly say this?Madhumita Sarcar:'..রাস্তায় এত বাঁদর নাচ নাচলাম ...', হঠাৎ একথা কেন বললেন মধুমিতা

Madhumita Sarcar: উত্তর কলকাতার অলিগলি খুঁজলে এমন অনেক দোকান পাওয়া যাবে যা শতবর্ষের পুরোনো। এই কলকাতা যেনো কলকাতা নয়, প্রাচীন যুগের গল্প বোনে। তেমনই এই উত্তর কলকাতায় রয়েছে গোলবাড়ির কষা মাংসের দোকান। গোলবাড়ির মটনের কালা ভুনা কেউ এমন নেই যে খাননি৷ এবার সেই দোকানেই হাজির হলেন টলি পাড়ার জনপ্রিয় এক অভিনেত্রী।

রোদ্দুর তাপে পুড়ছে গোটা শহর৷ রাস্তায় গাড়ির কমতি নেই। এমনই এক গরমের দিনে উত্তর কলকাতায় শ্যামাবাজারে পরিবেশকে আরও উত্তপ্ত করতে সেখানে হাজির হয়েছিলেন মধুমিতা সরকার। শরীর নিয়ে সচেতন মধুমিতা এবার গোলবাড়ির কষা মাংসে ডুবলেন৷ ডায়েটকে পাশে সরিয়ে রেখে তিনিও কবজি ডুবিয়ে খেয়েছেন পরোটা ও কালো মাটন।

এবার সেই ভিডিও নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে পোস্ট করলেন তিনি৷ ভিডিও পোস্ট করতেই একাধিক নেতিবাচক মন্তব্য ধেয়ে এসেছে। কিন্তু মধুমিতা ছেড়ে দেবার পাত্রী নন। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে মধুমিতার মাথায় টুপি ও চোখে সানগ্লাস। কেউ যাতে চিনতে না পারে তার জন্য বারবার তাকে টুপি টানতে দেখা গিয়েছে। এবার তা নিয়েই মন্তব্যের ঝড় আছড়ে পড়ল তার পোস্ট করা ভিডিওতে।

কেউ লিখেছেন, “এত কিছু করার পরও তো কেউ চিনতে পারল না”। তাকে উত্তর দিতেও ছাড়েননি অভিনেত্রী। জবাবে জানিয়েছেন, ““হ্যাঁ, রাস্তায় এত বাঁদর নাচ নাচলাম। তাও কেউ চিনতে পারল না। ভীষণই দুঃখিত”। আরেকজন লিখেছেন, “একটা জিনিস কিন্তু বলতে বাধ্য হচ্ছি, আপনি অতটাও জনপ্রিয় নন”। তাতে অভিনেত্রী উত্তর দিয়েছেন, ” ইয়ে, ইউরেকা”।

যদিও গোলবাড়ির কষা মাংস খেয়ে মধুমিতাও যে বিশেষ তৃপ্ত হয়েছেন তা নয়। বরং তিনি জানিয়েছেন, “আগের থেকে খারাপ হয়েছে”। তবে কি খেয়ে দেখবেন নাকি কেমন সেই মাংসের স্বাদ?

Note: ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।
এইভাবে তেজপাতা পোড়ালে দুশ্চিন্তা কেটে যাবে 5 Best Night Creams ৪ মাসের শিশু ২৪০ কোটির মালিক