'
জ্ঞানবাপী মসজিদ হিন্দুদের দিয়ে দিন, সমীক্ষা রিপোর্ট পেতেই মুসলিম পক্ষের কাছে দাবি জানাল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ

জ্ঞানবাপী মসজিদ মুসলিম নয় বরং হিন্দুদের আরাধনার স্থান! তাই সেটি হস্তান্তরের দাবী জানানো ‘বিশ্ব হিন্দু পরিষদ’। জ্ঞানবাপী মসজিদ নিয়ে বিতর্কের কথা আমরা সকলেই জানি। বহুদিন ধরেই সেখানে ‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’ বৈজ্ঞানিক সমীক্ষা চালাচ্ছে।

সেখান থেকেই এবার উঠে এলো অবাক করা তথ্য। তারা জানিয়েছে মন্দিরের ভেতরে হিন্দু দেবদেবীর মূর্তির অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছে। এরপর শনিবার একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে ‘বিশ্ব হিন্দু পরিষদ’ জানায় ‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’র হাতে সমস্ত প্রমাণ উঠে এসেছে, তাতে এটাই স্পট হয় যে জ্ঞানবাপী আসলে হিন্দু মন্দির।

আরও পড়ুন,
*Viral: হাতির ঠোঁটে ঠোঁট রেখে চুমু যুবকের! নেটপাড়া অবাক ভয়ংকর প্রেমের চমৎকার রসায়ন ভাইরাল হতেই
*Priyanka Chopra: স্ত্রীকে ছাড়া প্রথমবার ভারতে ‘ন্যাশনাল জিজু’ নিক! প্রকাশ্যে কান্না করছেন প্রিয়াঙ্কা! কি হল অভিনেত্রীর?

কমিটির কার্যকরী সভাপতি অলোক কুমার জানিয়েছেন, ১৯৯১ সালের ‘ধর্মীয় উপাসনাস্থল রক্ষা আইন’ মেনে এই স্থানকে হিন্দুমন্দির হিসেবে ঘোষণা করা উচিত। তাই ‘ইন্তেজামিয়া কমিটি’ যেন এই তথ্য মেনে নিয়ে জ্ঞানবাপী মন্দিরকে কাশী বিশ্বনাথ মন্দির কর্তৃপক্ষকে দিয়ে দেয় এবং তারা অন্য কোথাও মসজিদ তৈরি করে।

একইসাথে তিনি এও বলেন যে যদি তারা শান্তিপূর্ণভাবে মন্দির হস্তান্তর করেন তাহলে ভারতে সম্প্রীতির দৃষ্টান্ত তৈরি হবে। উল্লেখযোগ্য, ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে এই মন্দিরের ভেতরে গণেশ, হনুমান এবং নন্দী মূর্তির অস্তিত্ব রয়েছে। এছাড়াও সেখানে রয়েছে অসম্পূর্ণ শিবলিঙ্গের অস্তিত্ব।

যেগুলি ইতিমধ্যেই সংবাদমাধ্যমেও প্রকাশিত হয়েছে। তাই হিন্দু পরিষদের তরফ থেকে সেখানে শিবলিঙ্গ পুজোর অনুমতি চাওয়া হয়েছে। অন্যদিকে এই রিপোর্টকে চূড়ান্ত বলে মেনে নিতে নারাজ মুসলিম পক্ষ। এমনকি তাদের যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে রিপোর্ট নিয়ে। ফলে তারা এখনই মসজিদ হস্তান্তর করতে রাজি নন।

আরও পড়ুন,
*Weather Update: আগামীকাল থেকেই বৃষ্টি! রাজ্যের এই জেলাগুলি ভিজবে ৪৮ঘন্টা! জানুন হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস
*রেললাইনের উপরেই আস্ত সংসার, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও

Note: প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল / অনলাইনে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। খবরের সত্যতা যাচাই করেনা Sangbad Bhavan। ভিডিও খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন সংবাদ ভবন YouTube পেজ। ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।