'
ধর্মেন্দ্রর সঙ্গে চুম্বন দৃশ্যে, 'ইন্ডাস্ট্রি কাঁপিয়ে দিয়েছ..', ভাগ্নি টাবুর মশকরা শাবানাকে নিয়েধর্মেন্দ্রর সঙ্গে চুম্বন দৃশ্যে, 'ইন্ডাস্ট্রি কাঁপিয়ে দিয়েছ..', ভাগ্নি টাবুর মশকরা শাবানাকে নিয়ে

গত বছরের শুরুর দিকে মুক্তি পেয়েছিল আলিয়া ভাট ও রনবীর সিং অভিনীত ছবি ‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহানি’। ছবিতে যেমন তরুণ প্রজন্মের তারকারা ছিলেন তেমনি বর্ষীয়ান তারকাদের উপস্থিতিও লক্ষ্য করা গেছে। ছবিতে রনবীর ও আলিয়ার পাশাপাশি অভিনয় করেছেন শাবানা আজমি ও ধর্মেন্দ্র।

তারা রকি ও রানির দাদু ও ঠাকুমার চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তবে এই ছবিতে বর্ষীয়ান তারকাদের অভিনয় দর্শকদের মন ছুঁয়ে ফেললেও এর পাশাপাশি একটি বিষয় সকলকে চমকে দিয়েছে। ছবিতে শাবানার সঙ্গে চুম্বন দৃশ্যে দেখা গিয়েছে ধর্মেন্দ্রকে। আর এই দৃশ্যটি দর্শকদের জন্য বেশ চমকের ছিল।

আরও পড়ুন,
*Abhishek Bose: এ বছরেই বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন অভিষেক-সুরভি! পরিকল্পনা ফাঁস করলেন ‘ফুলকি’র রোহিত
*Hemant Soren: পূর্বে ইডিকে একটি ‘শর্ত’, গ্রেফতারের পরে হাইকোর্টের দারস্থ ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন

রনবীর ও আলিয়ার রসায়নের পাশাপাশি নজর কেড়েছে বর্ষীয়ান তারকাদের অভিনয়। এদিকে শাবানা সম্প্রতি জানিয়েছেন তার অভিনীত চুম্বন দৃশ্যের জন্য তাকে টাবু বেশ মজা করেছেন। শাবানা আজমি ফিল্মফেয়ার পুরস্কারে পার্শ্ব চরিত্রের জন্য মনোনীত হন এবং পুরস্কার পান।

শাবানা জানান তার ভাগ্নি হলো টাবু। টাবু শাবানাকে জানান, তিনি ইন্ডাস্ট্রি কাঁপিয়ে দিয়েছেন। ‘রকি অউর রানি কি প্রেম কাহানি’ ছবিতে ধর্মেন্দ্র’র প্রেমিকা হিসেবে অভিনয় করেছেন শাবানা। তাই অভিনয়ের খাতিরে চুম্বন দৃশ্যে অভিনয় করতে হয়েছে তাদের।

এই বিষয়ে একটি সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে ধর্মেন্দ্র বলেন ভালোবাসার কোনো বয়স হয় না৷ যেকোনো বয়সের মানুষ ভালোবাসার প্রতি আকৃষ্ট হতে পারে। তাই এই দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে আমি বা শাবানা কেউই অস্বস্তি অনুভব করিনি।

আরও পড়ুন,
*Bipasha Basu: দাদু হিরক বসুর মতন ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার পথে, দেবীর কোন কাণ্ড দেখে এ ক্থা বললেন বিপাশা
*বাজেটের পাশাপাশি নজর কাড়ল অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের শাড়ি

Note: প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল / অনলাইনে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। খবরের সত্যতা যাচাই করেনা Sangbad Bhavan। ভিডিও খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন সংবাদ ভবন YouTube পেজ। ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।