'
Sourav-Sana: 'সেই যে গেল আর আসার নামই নেই…’! সানা সবচেয়ে ভয় পান বাবা সৌরভকে নাকি মা'কে? ফাঁস হল দাদাগিরিতেSourav-Sana: 'সেই যে গেল আর আসার নামই নেই…’! সানা সবচেয়ে ভয় পান বাবা সৌরভকে নাকি মা'কে? ফাঁস হল দাদাগিরিতে

Sourav-Sana: ‘সেই যে গেলো, আর আসার নাম নেই।’ মেয়ের বিদেশযাত্রা সম্পর্কে এমনই তথ্য তুলে ধরলেন জনপ্রিয় ক্রিকেটার তথা প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। সম্প্রতি ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে উপস্থিত হয়েছিলেন একঝাঁক তারকা। রবিবারের স্পেশাল এপিসোড উপলক্ষ্যে এসেছিলেন তারা।

যেই মঞ্চে সম্পূর্ণা লাহিড়ী বলেন, ‘ছোটবেলায় রবিবার মায়েরও ছুটি থাকতো। আমি তো মা’কে ভয় পাই, তাই আমার মনে হতো এই দিনটা কেন? আমারও ছুটি মায়েরও ছুটি। তাই সারাক্ষণ মায়ের বকুনি খেয়েই দিনটা কাটতো।’ এরপরেই মেয়ের সম্পর্কে কথা বলতে দেখা যায় ‘মহারাজ’কে।

আরও পড়ুন,
*এক সঙ্গে একাধিক বিয়ের প্রস্তাব, শ্রদ্ধা কাপুরের নয়া ফটোশ্যুট ঘিরে হইচই
*ভারতের ঝুলিতে গ্র্যামি, গর্বের মূহুর্তের সাক্ষী হল গোটা দেশ

তিনি বলেন, ‘সানারও মনে হতো এই দিনটা কেন? তাইতো বড়ো হয়ে ঠিক করেছিল বাইরের কলেজে পড়বে। আর সেই যে একবার গেলো আর আসার নাম নেই। রবিবার, সোমবার কোনো বারই নেই।’ এরপর সম্পূর্ণা তার কাছে বলেন, ‘তোমার ক্ষেত্রে কেমন? আমি যেমন বাবার মেয়ে, বাবা কোনো কিছুতেই কিছু বলেনি কোনোদিন।’

এরপরেই দাদা’কে বলতে শোনা যায়, ‘সানা ওর মাকে এই পকেটে রাখে, বাবাকে ওই পকেটে। তবে আমাকে একটু ভয় পায়। কারণ, বাবা অনেক কিছুতেই না বলে। বাবা আসলে একটু স্ট্রিক্ট। মা ওর সাথে পেরে ওঠে না তাই সম্মতি দেয়।’ একইসাথে এও বলেন তিনিও ছোটবেলায় বাবাকে সবচেয়ে বেশি ভয় পেতেন।

উল্লেখযোগ্য, পড়াশোনা শেষ করে চাকরি করছেন সানা। কলকাতার লরেটো স্কুলে পড়ার পর উচ্চশিক্ষার জন্য ইংল্যান্ডে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে গ্র‍্যাজুয়েশন করে পোস্ট প্রোডাকশনের পড়াশোনার পাশাপাশি চাকরি করছেন আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স সংস্থা ‘ইনোভারভি’তে।

আরও পড়ুন,
*‘তুমি যা জিনিস গুরু, আমি জানি’, পুনম পান্ডে কাণ্ডে মারাত্মক টিপ্পনি গায়ক শিলাজিতের! কী বললেন তিনি?
*ফের স্বজনবিয়োগে মন ভারাক্রান্ত গায়ক অরিজিৎ সিংহ

Note: প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল / অনলাইনে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। খবরের সত্যতা যাচাই করেনা Sangbad Bhavan। ভিডিও খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন সংবাদ ভবন YouTube পেজ। ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।