'
দিঘা-মন্দারমণি ঘুরতে গেলে পুলিশের ‘অতিথি’র কাছে দিতে হবে নিজের তথ্য! নয়া নিয়ম পর্যটকদের জন্যদিঘা-মন্দারমণি ঘুরতে গেলে পুলিশের ‘অতিথি’র কাছে দিতে হবে নিজের তথ্য! নয়া নিয়ম পর্যটকদের জন্য

পর্যটনকেন্দ্র হিসাবে দিঘা, মন্দারমণি ও তাজপুরের জনপ্রিয়তা যেমন দিন দিন বেড়়েছে চলেছে ঠিক তেমনি সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অপরাধ প্রবণতাও বেড়েছে। দু’-এক দিনের ছুটি কাটানোর জন্য দিঘা, মন্দারমণি ও তাজপুরের কোনও বিকল্প নেই বাঙালি পর্যটকের কাছে। বরং, পর্যটনকেন্দ্র হিসাবে এই সৈকত নগরগুলির জনপ্রিয়তা আরও অনেকটাই বেড়়েছে দিনে দিনে।

তবে সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সাম্প্রতিক কালে এই সব জায়গায় অপরাধ প্রবণতাও বেড়েই চলেছে। আর শুধুমাত্র তা-ই নয়, অনেক সময়ে এটাও দেখা গিয়েছে, গা ঢাকা দেওয়ার জন্য ভিন্‌ জেলা বা ভিন্‌ রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা দুষ্কৃতীরা দিঘা বা মন্দারমণির হোটেলকেই বেছে নিয়েছেন! এই পরিস্থিতিতে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশ শহরে অপরাধের ঘটনা রুখতে নতুন উদ্যোগ নিল।

আরও পড়ুন,
*রোদে বসে পুড়তে হবে না, ভিটামিন ডি-এর ঘাটতি পূরণ করতে খেতে পারেন এই পাঁচ শুকনো ফল
*মুখে ক্রিম মেখেও ত্বক কোমল হচ্ছে না? কোন খারারগুলি খেলে শীতে ঝলমলে হবে ত্বক?

পুলিশ জানিয়েছে, নিজের তথ্য নথিভুক্ত করতে হবে সৈকত নগরীতে ঘুরতে আসা পসকল পর্যটকেই। আর এর জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে ‘অতিথি’ নামে একটি পোর্টাল তৈরি করা হয়েছে। পর্যটকেরা যে হোটেলে গিয়ে উঠুক না কেন, সেই হোটেল থেকেই নিজেদের তথ্য নথিভুক্ত করতে পারবেন ওই পোর্টালে। যাতে কিনা প্রয়োজন পড়লেই পর্যটকদের সম্পর্কে তথ্য জানতে পারে পুলিশ। জেলা পুলিশ সুপার সৌম্যদীপ ভট্টাচার্য বলেছেন, ‘‘হোটেলে আসা প্রতেক পর্যটকের তথ্য নথিভুক্ত রাখাটা বাধ্যতামূলক।” অনেক সময় এমনটাও দেখা যায়, সেই সব তথ্য ঠিক ঠাক ভাবে নথিভুক্ত করা হচ্ছে না। তারই ফলে বহু ক্ষেত্রেই অপরাধীরা পার পেয়ে গিয়েছেন। তাই সেই সব দিক মাথায় রেখে ডিজিটাল পদ্ধতিতে পর্যটকদের সম্পর্কে তথ্য নথিভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাতে কিনা এক ক্লিকেই সেই সব তথ্য পেয়ে যায় পুলিশ।

কিন্তু এই পোর্টাল কাজ করবে কী ভাবে? জেলা পুলিশ সুপার সৌম্যদীপ ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, আপাতত পাইলট প্রোজেক্ট হিসাবে ‘অতিথি’ পোর্টালের ব্যবহার শুরু হয়েছে। আর এই পোর্টালে ঢুকতে গেলে  hotel.emdp.in ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে হবে। এমনকি এই পোর্টালে হোটেল সম্পর্কেও নানা তথ্য পেতে পারেন পর্যটকেরা। সুপারের কথা অনুযায়ী, জেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা হোটেলগুলিকে একটি ছাতার তলায় আনার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে।

এই নতুন নিয়ম কবে থেকে চালু হবে?

এ বিষয়ে সুপার জানিয়েছেন, নতুন বছরের গোড়া থেকেই ব্যবস্থা চালু করার লক্ষ্য নিয়েছে প্রশাসন।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি সময়ে দিঘা, মন্দারমণি, তাজপুরে বেশ কয়েকটি অপরাধ মূলক ঘটনা ঘটেছে। কখনও দিঘার সৈকতে মহিলার অর্ধনগ্ন মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে তো আবার কখনও রেললাইনের ধার থেকে পাওয়া গিয়েছে মৃতদেহ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ভিন্ রাজ্যের দুষ্কৃতীরা দিঘা, মন্দারমণির হোটেলে গা ঢাকা দিয়েছে এমন ঘটনাও ঘটেছে। তাই সব দিক মাথায় রেখে ‘অতিথি’ পোর্টাল খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর পাশাপাশি আরও জানা যাচ্ছে, জেলা জুড়ে ধাপে ধাপে ১২০০টি হোটেলকে এই প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

আরও পড়ুন,
*শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে চান? শুধুমাত্র ওষুধের উপর ভরসা না করে পাতে রাখুন এই পাঁচ শাক
*তরুণীর বাবাকে এক বিশেষ দাঁত দিতে পারলেই হবে বিয়ে

Note: প্রতিবেদনে উল্লেখিত তথ্য বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল / অনলাইনে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। খবরের সত্যতা যাচাই করেনা Sangbad Bhavan। ভিডিও খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন সংবাদ ভবন YouTube পেজ। ফলো করুন Google News, Instragram, Facebook পেজ।